স্বশিক্ষিত লােক মাত্রই সুশিক্ষিত

স্বশিক্ষিত লােক মাত্রই সুশিক্ষিত ভাবসম্প্রসারণ

মূলভাব: শিক্ষার কোনাে সীমা বা পরিসীমা নেই। কেননা শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে জ্ঞান অর্জন করা। আর ‘দোলনা থেকে কবর পর্যন্ত শিক্ষা লাভের সময়।’ একটা শিক্ষা হচ্ছে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা আর অন্যটি বাস্তব জীবনের প্রেক্ষিতে প্রকৃতি থেকে অর্জিত শিক্ষা।

ভাবসম্প্রসারণ: প্রতিষ্ঠান থেকে অর্জিত শিক্ষা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শেষ হয়ে যায়। কিন্তু শিক্ষার তাে শেষ নেই। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় নির্দিষ্ট ডিগ্রি প্রদানের মধ্যেই দায়িত্ব শেষ হয়ে যায়। এতে জ্ঞানের পূর্ণতা আসে না। সেহেতু শিক্ষার পরিধি অনেক বড়। তাই এর জন্য যথেষ্ট অনুশীলন করতে হয়, জ্ঞানচর্চা করতে হয়। অনেক জ্ঞানী শিক্ষিতজন আছেন, যারা প্রাতিষ্ঠানিকভাবে উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেও নিজের বা দেশ ও জাতির কল্যাণে কিছুই করতে পারেননি। কারণ তাঁরা স্বশিক্ষায় সুশিক্ষিত না। প্রাতিষ্ঠানিক বইপুস্তকের বাইরেও জ্ঞানচর্চার জন্য অনেক বই আছে। যেগুলাে পড়লে অনেক কিছু জানা যায়। শুধু বই কেন, পরিবার, সমাজ থেকেও শিক্ষণীয় অনেক বিষয় আছে। সেখান থেকে জ্ঞানলাভ করা যায়। অনেক স্বশিক্ষিত ব্যক্তি আছেন, যারা কোনাে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা পাননি অথচ তারা এই বিশ্বমানবের কল্যাণের জন্যে অনেক কিছু করে গেছেন। দৃষ্টান্তস্বরূপ সক্রেটিস, এরিস্টটল, নিউটন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল ইসলাম প্রমুখের নাম উল্লেখ করা যায়। তারা প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় শিক্ষিত না হয়েও স্বশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে অমর হয়ে রয়েছেন সকলের মাঝে। সুশিক্ষিত লােক হন আলােকিত মানুষ। ঈদের থাকে পরিশীলিত রুচিবােধ। তাই একটি দেশ ও জাতির সার্বিক উন্নতির চিন্তা করলে স্বশিক্ষিত ও সুশিক্ষিত লােকের বড় বেশি প্রয়ােজন। আর একমাত্র স্বশিক্ষার মাধ্যমেই সুশিক্ষিত হয়ে ওঠা সম্ভব। সুশিক্ষিত ব্যক্তির মন হয় জ্ঞানের আলােয় উদ্ভাসিত। তাঁরা হন যুক্তিবাদী দৃষ্টিভঙ্গির অধিকারী। এঁদেরই বলা হয় আলােকিত মানুষ। আর এ আলােকিতজনরা তাদের জ্ঞানের আলাে ছড়িয়ে দেন সমাজের চারধারে। তাদের রুচিবােধ হয় উন্নত, তাঁরা অচিরণে থাকেন বিনম্র ।

একটা দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি ও উন্নতিকল্পে স্বশিক্ষিত ও সুশিক্ষিত লােকের কোনাে বিকল্প নেই। এজন্যে নিজস্ব উদ্যোগেরও খুব প্রয়ােজন । জ্ঞানপিপাসু মানুষ তাই সারাজীবন জ্ঞান সাধনা করে চলে। জ্ঞানার্জনের কোনাে বিকল্প নেই।

বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *