ভাবসম্প্রসারণ: কালাে আর ধলাে বাহিরে কেবল ভিতরে সবারই সমান রাঙা |

কালাে আর ধলাে বাহিরে কেবল ভিতরে সবারই সমান রাঙা ভাবসম্প্রসারণ (৩০০ শব্দ)। উপযুক্ত শ্রেণীসমূহ: ৬,৭,৮,৯,১০

কালাে আর ধলাে বাহিরে কেবল ভিতরে সবারই সমান রাঙা ভাবসম্প্রসারণ

মূলভাব: বিশ্বব্যাপী বিশাল জনগােষ্ঠীর প্রধান পরিচয় মানুষ হলে বাহ্যত এদের মধ্যে রয়েছে নানান পার্থক্য। জাতি-ধর্ম-বর্ণ-সংস্কৃতি ইত্যাদিকে কেন্দ্র করে মানুষের এ বাহ্যিক পার্থক্য বিদ্যমান। কিন্তু বাহ্যিক এ পার্থক্য থাকলেও সকল মানুষের দেহে প্রবাহিত লাল রক্ত সকল মানুষের অভিন্ন মহিমাকে প্রকাশ করে।

সম্প্রসারিত ভাব : জাতি-ধর্ম-বর্ণ-গােত্র ইত্যাদি মানুষের বাহ্যিক পরিচিত প্রদান করে। যেমন: কেউ হিন্দু, কেউ মুসলিম, কেউ চাকমা, কেউ মারমা, কেউ কালাে, কেউ সাদা ইত্যাদি। কিন্তু এসবের উর্ধ্বে মানুষের একটাই পরিচয় সে ‘মানুষ’। সবারই ধমনিতে বইছে। একই রঙের রক্ত। অথচ বাহ্যিক পার্থক্য জন্ম দিচ্ছে মানুষে মানুষে সম্প্রদায়গত হিংসা, বিদ্বেষ, হানাহানি। এসব কারণে পৃথিবীব্যাপী বিরাজ করছে অস্থিরতা। বর্ণের কারণে কৃষ্ণাঙ্গ আঘাত করছে শ্বেতাঙ্গকে, শ্বেতাঙ্গ কৃষ্ণাঙ্গকে, ধর্মের কারণে সংঘটিত হচ্ছে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, যাতে নির্মমভাবে প্রাণ হারাচ্ছে মানুষ। আবার ধনের প্রশ্নে ধনী শােষণ করছে দরিদ্রকে। এভাবে মানুষের মর্যাদা হচ্ছে ভূলুণ্ঠিত। মনুষ্যত্ববােধ যেন হয়ে পড়ছে স্বপ্নালােকের বিষয়। শােষিত, অত্যাচারিত মানুষের হাহাকারে আজ পৃথিবীর বাতাস ভারাক্রান্ত, মানুষ আজ নিজেদের মর্যাদা ভুলে গিয়ে পরস্পর দ্বন্দ্ব-সংঘাতে লিপ্ত হয়ে বিকৃত আনন্দ উপভােগ করে। মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব। সৃষ্টিকর্তা তার মধ্যে বিবেক-বুদ্ধি সঞ্চার করেছেন আপন মর্যাদা প্রতিষ্ঠার জন্যে। অথচ মানুষ আজ সে মর্যাদা ও শ্রেষ্ঠত্ব ভুলে গিয়ে হিংসা-বিদ্বেষের পাশব আনন্দে মত্ত হয়ে আছে। অথচ জাতি-ধর্ম-বর্ণ, গােত্র দিয়ে যে পরিচয় আজ দেওয়া হয় সেটা মানুষের প্রকৃত পরিচয় নয়। কেননা সকল মানুষ একই সৃষ্টিকর্তার সৃষ্টি। একই মানবকুলের অংশ। তাই কালাে-ধলাে, হিন্দু-মুসলিম এ ধরনের স্বতন্ত্র পরিচয় কখনােই প্রধান নয়। সবচেয়ে বড় পরিচয় মানুষ। এ বােধ, এ বিশ্বাসই পারে সকল হিংসা-বিদ্বেষের অবসান ঘটাতে, জন্ম দিতে পারে শান্তিপূর্ণ মনােরম পৃথিবীর।

মন্তব্য: পৃথিবীর সকল মানুষের উচিত সব ধরনের ভেদাভেদ, হিংসা-বিদ্বেষ ভুলে ঐক্যমন্ত্রে উদ্দীপিত হয়ে ওঠা। সকল রক্তমাংসের মানুষ একই মর্যাদার অধিকারী— এ বােধের প্রতিষ্ঠা মানবসমাজকে করে তুলবে সর্বাঙ্গসুন্দর । বাহ্যিক পরিচয় নয়, বরং অন্তরগত পরিচয় মানুষের প্রধান পরিচয়— এ চিন্তায় সবাইকে ঐকমত্য পােষণ করতে হবে।

বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *