ভাবসম্প্রসারণ: কাঁটা হেরি ক্ষান্ত কেন কমল তুলিতে দুঃখ বিনা সুখ লাভ হয় কি মহিতে?

ভাবসম্প্রসারণ: কাঁটা হেরি ক্ষান্ত কেন কমল তুলিতে দুঃখ বিনা সুখ লাভ হয় কি মহিতে? | বা কাঁটা বনের গোলাপই সত্যি কারের গোলাপ | বা সুখেতে আসক্তি যার আনন্দ তাহারে করে ঘৃণী, কঠিন বীর্যের তারে বাধা আছে সদ্যোগের বীণা।


ভাবসম্প্রসারণ: কাঁটা হেরি ক্ষান্ত কেন কমল তুলিতে দুঃখ বিনা সুখ লাভ হয় কি মহিতে?

মূলভাব : মানব জীবন কুসুমাস্তীর্ণ নয়। অনেক দুঃখ-কষ্টের মধ্য দিয়ে তাকে সুখের স্বর্গ রচনা করতে হয়।

সম্প্রসারিত ভাব : Life is not a bed of roses.’ অর্থাৎ ‘জীবন পুষ্পশয্যা নয়। অনেক কণ্টকাকীর্ণ পথ অতিক্রম করে আমাদের সুখের স্বর্গ রচনা করতে হয়। জীবনের কোনাে মহৎ কর্মই ত্যাগ-তিতিক্ষা ও দুঃখ-কষ্ট ছাড়া সফল হয় না। সংগ্রামী মানুষের গলেই শােভা পায় বিজয় মাল্য। পথ দীর্ঘ দেখে পথিক যদি তার যাত্রা বন্ধ রাখে অথবা কিছুদূর গিয়ে ফিরে আসে তবে সে কোনােদিন গন্তব্য স্থানে পৌঁছতে পারবে না। সেখানে পৌছতে হলে তাকে পথের ক্লান্তি স্বীকার করতেই হবে। স্বীকার করতে হবে পথের সকল প্রতিকূলতা। জয় করতে হবে পথপ্রান্তের সব প্রতিবন্ধকতা। যেব্যক্তি পদ্ম তুলতে গিয়ে কাঁটার ভয়ে ফিরে আসে, সে ব্যক্তির পক্ষে পদ্ম আহরণ করা কখনও সম্ভব হবে না। জীবনে যারাসিদ্ধিলাভ করেছেন, তাদের প্রত্যেককেই বহু বাধা-বিঘ্ন ও দুঃখ-কষ্ট সহ্য করতে হয়েছে। মহামানব হযরত মুহম্মদ (স.)ইসলাম প্রচার করতে গিয়ে প্রথম জীবনে প্রতি পদক্ষেপে বাধাগ্রস্ত হয়েছেন। আঘাতে রক্তাক্ত হয়েছে তার শরীর, তবু সত্যপ্রচারে এতটুকু পিছপা হননি তিনি। অমানিশার ঘাের অন্ধকার থেকে মানবতাকে দিয়েছেন মুক্তি, ফুলের সৌরভে মাতিয়েতুলেছেন বিশ্বকে। শত লাঞ্ছনা-গঞ্জনা-বঞ্চনা সয়েও সত্যের পথে থেকেছেন অবিচল। অনুরূপ গাজি সালাউদ্দীন, শেরশাহ,নেপােলিয়ন এবং কামাল পাশার মতাে ব্যক্তিরা তাদের স্ব স্ব অবস্থানে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হয়ে আছেন। বস্তুত, মানুষের জীবনেদুঃখের ভেতর দিয়েই আসে সত্যিকার সুখ।

মন্তব্য : মহৎ সাফল্য সাধনাসাপেক্ষ। জীবনে সফলতা লাভ করতে হলে জীবন পথের সকল বাধা-বিপত্তি ও দুঃখ-দুর্দশা বরণ করে অগ্রসর হতে হবে।

বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *