Home প্রতিবেদন বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া-প্রতিযোগিতা প্রতিবেদন | প্রতিবেদন রচনা |

বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া-প্রতিযোগিতা প্রতিবেদন | প্রতিবেদন রচনা |

by Curiosityn

স্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া-প্রতিযোগিতা সম্পর্কিত একটি
প্রতিবেদন

বরাবর,
………স্কুল,
কুমিল্লা।

বিষয় : স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠান সম্পর্কিত প্রতিবেদন।

জনাব,

আপনার ১৫/০৩/১৫ তারিখে প্রদত্ত আদেশক্রমে (আদেশ নং- স, ক ০৭/০৪) সুষ্ঠু তথ্য প্রদান সাপেক্ষে মহাবিদ্যালয়ে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত বার্ষিক ক্রীড়ানুষ্ঠান সম্পর্কে একটি সংক্ষিপ্ত প্রতিবেদন নিচে উপস্থাপন করছি।

১। গত ১৫ মার্চ ২০১৫ স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শেষ হয়েছে। প্রতিবারের ন্যায় এবারেও স্কুলের নিয়মিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের দায়িত্বে ছিল স্কুল সংসদের ক্রীড়া বিভাগের ওপর। ক্রিড়া শিক্ষক মামুন হায়দার সার্বিক তত্ত্বাবধানে ক্রীড়া-বিভাগের সম্পাদকের উদ্যোগে বিভিন্ন কমিটির সদস্যদের ঐকান্তিক সহযোগিতা ও প্রচেষ্টায় ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সুন্দরভাবে পরিচালিত ও সাফল্যমণ্ডিত হয়েছে।

২। অন্যান্য বারের তুলনায় এবারে এ স্কুলের বার্ষিক ক্রিড়া প্রতিযোগিতার বিষয় যেমন ছিল অনেক, তেমনি ছিল বৈচিত্র্যপূর্ণ। যার জন্যে সব শিক্ষার্থীরাই কম বেশি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল।

৩। বার্ষিক ক্রিড়া প্রতিযোগিতার অনুষ্ঠান চলে একটানা ছয় দিন। সকাল নয়টায় প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মাননীয় অধ্যক্ষ এবং প্রধান অতিথি দেশবরেণ্য কবিপ্রতিভা সৈয়দ সামছুল হক। অত্যন্ত সুশৃঙ্খল ও বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে বার্ষিক ক্রীড়া-প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ঘোষিত হয়।
8। প্রতিযোগিতার বিষয়-বণ্টন ছিল নিম্নরূপ :

দিনবারবিষয়
প্রথম দিনশনিবারকুরআন তেলাওয়াত, হামদ-নাত, কবিতা আবৃত্তি
দ্বিতীয় দিনরবিবারউপস্থিত বক্তৃতা, বিতর্ক প্রতিযোগিতা, দেশাত্মবোধক গান
তৃতীয় দিনসোমবারসুন্দর হস্তাক্ষর, রচনা লিখন, চিত্রাঙ্কন, পুঁথি পাঠ, রবীন্দ্র সঙ্গীত
চতুর্থ দিনমঙ্গলবারনজরুল সঙ্গীত, একক অভিনয়, গল্প বলা, ধারাবাহিক গল্প বলা
পঞ্চম দিনবুধবারলোকসঙ্গীত, পল্লিগীতি, কৌতুক, স্বরচিত গল্প, যেমন খুশি তেমন সার্জ এবং নৃত্য
ষষ্ঠ দিনবৃহস্পতিপুরস্কার বিতরণী ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

৫। প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শিক্ষা ও
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।
স্কুলের শিক্ষকগণ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিচারকের গুরুদায়িত্ব পালন করেন। পুরস্কার-বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। উদ্বোধনী ও সমাপনী দিবসের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অভিভাবক ও স্থানীয় গণ্যমান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। বিপুল সংখ্যক আমন্ত্রিত অতিথি অনুষ্ঠান দুটিতে উপস্থিত থেকে ক্রিড়াবিদদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা যোগান। অনুষ্ঠানসমূহ শ্রোতাদর্শকদের সকলের প্রশংসা অর্জন করে।

৬। প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে সনদ ও বই পুরস্কার হিসেবে প্রদান করা হয়। পুরস্কারের মোট মূল্যমান ছিল পঞ্চাশ হাজার টাকা। প্রতিযোগিতায় সর্বাধিক পুরস্কার (৫টি) অর্জনের গৌরব লাভ করেছে প্রথম বর্ষের ছাত্রী শামিম আরা। ২য় বর্ষ বিজ্ঞান শাখার ছাত্র মোখলেস উর রহমান ৪টি বিষয়ে প্রথম হয়ে দ্বিতীয় শ্রেষ্ঠ প্রতিযোগী হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছে।

৭। অনুষ্ঠানের সকল দিবসেই শ্রোতার সমাগম ঘটেছে এবং স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সাফল্যমণ্ডিত হয়েছে।

৮। অত্যন্ত উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সমাপ্ত হয়েছে।

প্রতিবেদকের নাম ও ঠিকানা:
আসিফ আহম্মেদ
সরকারি স্কুল।
প্রতিবেদনের শিরোনাম: স্কুলে বার্ষিক ক্রিড়া প্রতিযোগিতা উদযাপন উপলক্ষে প্রতিবেদন
তারিখ … /…/…

You may also like

Leave a Comment